সততার সাথে - সততার পথে

গাছের তলায় ক্লাস ! পড়াশোনা শুরু।

করণা সংক্রমণ প্রদেশের জনজীবনকে স্তব্ধ করে দিয়েছে। অফিস কাছারি বন্ধ হয়ে যাওয়ার সাথে সাথে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল স্কুল কলেজ। একই রকম ভাবে প্রায় তিন মাস থাকার পর ১ জুন থেকে পুরো দেশে আনলক প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

শহর অঞ্চলের প্রাইভেট স্কুল গুলি ছাত্র-ছাত্রীদের মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইন ক্লাস করালেও সরকারি স্কুলগুলিতে এবং গ্রামাঞ্চলের পিছিয়ে থাকায় এলাকার ছাত্রছাত্রীরা পড়াশোনা থেকে একেবারেই  বিচ্ছিন্ন হয়ে পরেছিল।

পিছিয়ে পড়া এলাকার ছাত্র-ছাত্রীরা ডিজিটাল পাঠ্যক্রম কেমন, তা তারা জানে না। পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এ কথাগুলো চিন্তা করে খোলা আকাশের নিচে পড়াশোনা চালাবার নির্দেশ দিয়েছিলেন যাতে ছাত্র-ছাত্রীদের কিছু হলেও পুনরায় পড়াশোনার সাথে সংযুক্ত হতে পারে।

বৃহস্পতিবার আসানসোলের বার্নপুর এলাকার বরথল গ্রামের শান্তিনগর বিদ্যামন্দিরের শিক্ষক ও শিক্ষিকারা শিক্ষামন্ত্রীর কথাকে বাস্তবায়িত করে দেখালেন । এই অভিনব শিক্ষাদান কর্মকাণ্ডের উদ্বোধন করেছেন পশ্চিম বর্ধমান জেলার অতিরিক্ত জেলা শাসক প্রশান্ত মন্ডল।

পড়াশোনার পাশাপাশি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ কেমন করে ঠেকানো যায় তাও শেখানো হলো পড়ুয়াদের। পাঠ দেওয়া হলো শরীরচর্চার। বাদ থাকলো না মিড-ডে-মিলও। ডিজিটাল পাঠ্যক্রম না থাকলেও ক্লাস হল অ্যানিমেশনের মাধ্যমেও। ২৯৫ জন পড়ুয়ার সাথে সাথে অভিভাবকরাও এই অভিনব কার্যক্রমে বেজায় খুশি।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

Your email address will not be published.