সততার সাথে - সততার পথে

T20 মহিলা বিশ্বকাপ অধরা ভারতের, জিতল ফের অস্ট্রেলিয়া

টি-টোয়েন্টি মহিলাদের বিশ্বকাপ 2020 ফাইনাল জিতল অস্ট্রেলিয়া। প্রায় 86 হাজার দর্শকের উপস্থিতিতে ঘরের মাঠে প্রচন্ড চাপে অস্ট্রেলিয়া মহিলা দল নিজেদের সেরাটা দিল এবং প্রত্যাশার চাপে গুটিয়ে যাওয়া হারমানপ্রীতের দলকে অনায়াসে পরাজিত করল।

ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা নারী দিবসে ভারতীয় মহিলাদের হাতে কাপ দেখতে পেল না। এইবার এই প্রথমবারের মতো মহিলা বিশ্বকাপের ফাইনালে উঠেছিল আমাদের দল। রান তারা করবার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী হলেও ভারতীয় ব্যাটিং তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়ে।

অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে প্রথমে চার উইকেটে 184 রান করে। 185 রানের লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নামা ভারতীয় মহিলা দল 19.1 ওভারে এই মাত্র 99 রানে থেমে গেল, কোন লড়াই দিতে পারল না তারা।
খেলাপ্রেমীদের নিশ্চয়ই 2003-এর পুরুষ বিশ্বকাপ ফাইনাল মানে আছে। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের দলের সাথে অস্ট্রেলিয়ানদের খেলাতে প্রচন্ড আশাবাদী ভারতীয় দল প্রথম ওভারেই ম্যাচ হেরে যায়। ঠিক একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি এবার আবার দেখা গেল। ভারত প্রথম ওভারে দিল 14 রান।

শেফালী বার্মা, যার উপর দল প্রচন্ডভাবে নির্ভরশীল ছিল, তিনি কিন্তু মাত্র দুই রান করেছেন। ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই শেফালি ভার্মা আউট হওয়ার পর দ্বিতীয় ওভারে তানিয়া ভাটিয়া আহত হয়ে মাঠ ছাড়েন। সেই ওভারেই ষষ্ঠ বলে জেমাইমা রডরিগেজ আউট হলেন। চতুর্থ ওভারে আউট হলেন স্মৃতি মান্ধানা। ষষ্ঠ ওভারে আউট হলেন অধিনায়ক হারমানপ্রীত কৌর। 12 তম ওভারে ফিরলেন ভেদা কৃষ্ণমূর্থি। ব্যাটিংয়ের সময় পুরো দলকে আয়ারাম গয়ারাম মনে হয়েছে। ভারতীয় দল পুরো প্রতিযোগিতা জুড়ে ভালো খেললেও ফাইনালের আসল দিনে কোন টিমওয়ার্ক দেখা গেল না, ভালো খেলতে পারলেন না কেউই।

টস হেরে প্রথম থেকেই ভারতীয়রা খেলার মধ্যে ছিলেন না। প্রথম ওভারে অস্ট্রেলিয়া করে 14 রান। ভারতিয়রা সহজ ক্যাচ ফেলে দেয়। প্রথম ছয় ওভারে হোম টিম একটিও উইকেট  না হারিয়ে তুলে ফেলে 49 রান, যা 10 ওভারে বেড়ে দাঁড়ায় 91।

11 তম ওভারে শিখা পান্ডেকে পরপর তিন ছক্কা মেরে এলিসা হিলি 23 রান তোলেন। হিলি ঝকঝকে অসাধারণ দুরন্ত 75 রান করলেন মাত্র 39 বলে, পাঁচটি ছক্কা এবং সাতটি 4 মারলেন তিনি।
অসাধারণ খেললেন বেথ মুনি, 54 বলে করলেন 78 রান। ছক্কা মারতে না পারলেও দশটি 4 এর সাহায্যে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থাকলেন।

একসময় মনে হচ্ছিল অস্ট্রেলিয়া মহিলা দলের স্কোর 200 পার হয়ে যাবে। 9 এর বেশি রান রেট তাড়া করতে নেমে ভারতীয় মহিলারা একদমই চাপ নিতে পারে নি। যুদ্ধজয়ের এত কাছে এসেও খালি হাতে ঘরে ফেরার এই গল্প প্রত্যেক ভারতবাসী হৃদয় আবার ভারাক্রান্ত করে দিয়ে গেল।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

Your email address will not be published.