সততার সাথে - সততার পথে

প্রয়াত প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়

প্রয়াত প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। বেশ কিছুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। সোমবার বিকেল পৌনে ছ’টা নাগাদ প্রণব-পুত্র অভিজিৎ মুখোপাধ্যায় টুইট করে এ খবর জানিয়েছেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।

তিন সপ্তাহ আগে দিল্লির আর্মি রেফারেল হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়। ৯ অগাস্ট দিল্লির বাসভবনে শৌচালয়ে পড়ে মাথায় গুরুতর চোট পান তিনি। তাঁকে ভর্তি করা হয় দিল্লির সেনা হাসপাতালে। মস্তিষ্কের রক্তক্ষরণ ধরা পড়লে জরুরি অস্ত্রোপচার করা হয় তাঁর। সেই সময়ে জানা যায় করোনা আক্রান্ত তিনি। এরপর আর সুস্থ হয়ে ওঠেননি প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি। কোমায় চলে যান তিনি। ভেন্টিলেটর সাপোর্টে রাখা হয় তাঁকে। এরপর কখনো উন্নতি, কখনো অবনতি ধরা পড়ে তাঁর স্বাস্থ্যে।

মাঝে চিকিৎসায় সাড়াও দিচ্ছিলেন তিনি। গত সপ্তাহে ফুসফুস ও কিডনিতে সমস্যা ধরা পড়ে তার। যদিও স্বাস্থ্যজনিত প্যারামিটার স্থিতিশীল ছিল প্রণববাবুর। ডাক্তারি পরিভাষায় তিনি ‘হিমোডায়নামিক্যালি স্টেবল’ ছিলেন। কিন্তু সোমবার ফের তাঁর স্বাস্থ্যের অবনতির কথা সামনে আসে। তারপর দুপুরে তার ছেলে একটি টুইটে প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির মৃত্যুর খবর জানান।

প্রাক্তন রাষ্ট্রপতির প্রয়াণে বর্তমান রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ শোকপ্রকাশ করেছেন। টুইটে তিনি লিখেছেন, ‘ওঁর প্রয়াণ এক যুগের সমাপ্তি। রাষ্ট্রপতি ভবনকে সাধারণের জন্য খুলে দিয়েছিলেন প্রণব মুখোপাধ্যায়।’

১৯৩৫ সালের ১১ ডিসেম্বর বীরভূম জেলার কীর্ণাহার লাগোয়া মিরিটি গ্রামে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবা কামদাকিঙ্কর বিশিষ্ট স্বাধীনতা সংগ্রামী এবং কংগ্রেস নেতা ছিলেন। ১৯৬৬ সালে তিনি সক্রিয় রাজনীতিতে প্রবেশ করেন। ১৯৬৯-এ বাংলা কংগ্রেসের টিকিটে রাজ্যসভার সদস্য হন। ১৯৭৫ সালে কংগ্রেসের টিকিটে দ্বিতীয়বার রাজ্যসভার সদস্য হন প্রণববাবু। ১৯৭৩ সালে শিল্প প্রতিমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেন।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

Your email address will not be published.