সততার সাথে - সততার পথে

বৈরুতের ভয়ঙ্কর বিস্ফোরণের পর চেন্নাই বন্দরে বিপুল পরিমানে মজুদ রাসায়নিক পদার্থ নিয়ে আশঙ্কা

গত মঙ্গলবার দিন লেবাননের রাজধানী বৈরুতে এক ভয়ঙ্কর বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণের কারণ হিসাবে বন্দরের গুদামে মজুদ প্রায় 2 হাজার 750 টন বিপুল পরিমাণ অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট এর অসংরক্ষিত অবস্থায় থাকাকে দায়ী করা হচ্ছে। প্রায় আড়াইশো কিলোমিটার দূর থেকে এই ভয়ঙ্কর বিস্ফোরণের শব্দ এবং শক ওয়েভ অনুভব করা গিয়েছিল। পায় 135 জনের মৃত্যু এবং হাজার হাজার মানুষ আহত হয়েছিলেন।

প্রায় এই একই রকম ভাবে ভারতের তামিলনাড়ুর চেন্নাই বন্দরে প্রায় 700 টন বিস্ফোরক রাসায়নিক পদার্থ শুল্ক বিভাগের অধীনে বহুদিন ধরে পরে রয়েছে। বেইরুটের ঘটনার পর ভারতের এই এলাকার বাসিন্দারা গুরুতর উদ্বেগের মধ্যে রয়েছেন। স্বাভাবিকভাবেই এই বিপুল পরিমানে মজুদ রাসায়নিক পদার্থের বিস্ফোরণের আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

বন্দর কর্তৃপক্ষের অনুসারে এই ধরনের রাসায়নিক পদার্থ স্থানীয় আতশবাজি কারখানা এবং সার তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। একটি রাসায়নিক কারখানার তরফ থেকে এই রাসায়নিক পদার্থকে অবৈধভাবে আমদানি করা হয়েছিল এবং 2015 সাল থেকে চেন্নাই বন্দরে সেগুলোকে বাজেয়াপ্ত করে রাখা আছে।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে এই ভয়ঙ্কর রাসায়নিক পদার্থের নিরাপদ নিষ্পত্তির দাবি জানানো হয়েছে। চেন্নাই বন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে এখন আর এই ধরনের বিস্ফোরক রাসায়নিক পদার্থের সংরক্ষণ বন্দরে আর করা হয় না।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

Your email address will not be published.