সততার সাথে - সততার পথে

দিল্লির হিংসাত্মক আন্দোলন নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার জন্য রাষ্ট্রসঙ্ঘের ক্ষোভের মুখে দিল্লি

দিল্লির হিংসাত্মক আন্দোলনকে ঠিকমতো নিয়ন্ত্রণে না আনতে পারার জন্য এবার রাষ্ট্রসঙ্ঘের ক্ষোভের মুখে পড়তে হলো দিল্লিকে। এদিকে সুপ্রিম কোর্টের তরফেও বলা হয়েছে, দিল্লি পুলিশ পেশাদারিত্বের সঙ্গে এই আন্দোলনকে ঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হয়েছে। দিল্লিতে এতগুলো মানুষের মৃত্যু সত্যিই দুর্ভাগ্যজনক। দ্রুত পরিস্থিতিকে নিয়ন্ত্রণে আনতে আবেদন জানায় রাষ্ট্রসংঘ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, আমেরিকার রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের ভারত যাত্রার সময় দিল্লিতে এই আন্দোলন শুরু হয়। CAA-এর বিরুদ্ধে আন্দোলনকারীরা রাস্তায় নেমে পড়ে, প্রচুর ধন সম্পত্তির ক্ষতি হয়, জারি করা হয়েছিল ১৪৪ ধারা। এ পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৩৪।

জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল উত্তপ্ত এলাকাগুলি পরিদর্শন করেন এবং জানান পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে, এখন ভয়ের কোন কারণ নেই। কিন্তু অজিত দোভালের এই মন্তব্য এলাকাবাসীকে কতটা স্বস্তিতে রাখবে সেটা সম্বন্ধে রাজনৈতিক মহল খুব একটা নিশ্চিত নন।

সুপ্রিম কোর্টের তরফে বলা হয়েছে বিজেপির কিছু নেতা যে উস্কানিমূলক মূলক মন্তব্য করেছিল তাদের বিরুদ্ধে দিল্লি পুলিশ কেন এফআইআর দায়ের করেনি? শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য চারিদিকে চলছে পুলিশি টহলদারি,  ১৪৪ ধারা জারি রয়েছে জাফরাবাদ, কারওয়াল নগর, মহেশপুর প্রভৃতি এলাকায়। 
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির তরফেও  শান্তি ও ভাতৃত্বের বার্তা দেওয়া হয়েছে। তিনি বললেন ভারত শান্তির দেশ, এখানে হিংসার কোন স্থান নেই।

তুমি এটাও পছন্দ করতে পারো

উত্তর দিন

Your email address will not be published.